বুধবার, ০২ ডিসেম্বর ২০২০, ০৬:৪৪ পূর্বাহ্ন

নোয়াখালীতে হাসপাতালে ভর্তির কয়েক ঘন্টা পরে মারা গেলেন

মুজাহিদুল ইসলাম সোহেল, নোয়াখালী প্রতিনিধি : গত কয়েকদিন ধরে জ্বর, শ্বাসকষ্ট ও গলা ব্যাথায় ভুগছিলেন ৫৭ বছর বয়সী এক ব্যক্তি। শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে পরিবারের লোকজন দ্রুত তাকে নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করেন। হাসপাতালে ভর্তির কয়েক ঘণ্টা পর মারা যান তিনি। মৃত ব্যক্তি নোয়াখালীর বেগমগঞ্জ উপজেলার নরোত্তমপুর ইউনিয়নের বাসিন্দা।

রবিবার ভোরে তার দাফন সম্পন্ন হয়েছে। এর আগে শনিবার রাত ৯টার দিকে নোয়াখালী জেনারেল হাসাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান তিনি।

মৃতের পরিবারের বরাত দিয়ে স্থানীয় জনপ্রতিনিধি বলেন, মৃত ব্যক্তি দুই ছেলে ও এক মেয়ের জনক। তিনি দীর্ঘদিন প্রবাসে থাকার পর গত চার-পাঁচ বছর আগে বাড়িতে আসেন। এরপর থেকে তিনি পরিবারের সঙ্গে নিজ বাড়িতে বসবাস করতেন। তার বাড়ি নরোত্তমপুর ও চৌমুহনী পৌরসভার সীমান্ত এলাকায়। তিনি গত চার-পাঁচদিন ধরে জ্বর শ্বাস কষ্ট ও গলা ব্যাথায় ভুগছিলেন।

বেগমগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. অসীম কুমার দাস বলেন, মৃত ব্যক্তির করোনা উপসর্গ থাকায় নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতাল থেকে তার নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে। রিপোর্ট আসার পর জানা যাবে তিনি করোনায় আক্রান্ত ছিলেন কি না।

এদিকে জেলা সিভিল সার্জন কার্যালয় সূত্রে জানা গেছে, গত ২৪ ঘণ্টায় নোয়াখালীতে এক নারীসহ নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন আরো চারজন। এর মধ্যে জেলার সদর উপজেলায় তিনজন ও সুবর্ণচরে একজন রয়েছে। জেলায় মোট আক্রান্ত ৩৫৭ জন।

বেগমগঞ্জে ১৭৯, কবিরহাটে ৫৪, সদরে ৪৪, চাটখিলে ২৬, সোনাইমুড়ীতে ১৮, সুবর্ণচরে ১২, সেনবাগে ১১, কোম্পানীগঞ্জে সাত ও হাতিয়ায় ছয়জন রোগী রয়েছে। এদের মধ্যে মারা গেছেন সোনাইমুড়ীতে মোরশেদ আলম (৪৫) নামে এক ইতালি প্রবাসী, সেনবাগে রাজমিস্ত্রি মো. আক্কাস (৪৮), বেগমগঞ্জে তারেক হোসেন (৩০) ও আমিনুল ইসলাম মিন্টু (৪৭) নামের দুই ব্যবসায়ী, সোনাইমুড়ীতে ফখরুল ইসলাম বাচ্চু (৫৯) নামের এক কৃষক, বেগমগঞ্জের কুতুবপুরে শহিদুর রহমান (৬৬) এবং চৌমুহনী পৌরসভা করিমপুরের বেলাল উদ্দিন (৫৭)। সুস্থ হয়েছেন ২৭ জন।

নিউজটি শেয়ার করুন

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত © ২০২০ বাঙলার জাগরণ
কারিগরি সহযোগীতায় :বাংলা থিমস| ক্রিয়েটিভ জোন আইটি