বৃহস্পতিবার, ২৬ নভেম্বর ২০২০, ১০:৩০ পূর্বাহ্ন

শিরোনাম

জাফরুল্লাহ চৌধুরী বললেন আমার দেশের জন্য অনেক কাজ বাকি

নিউজ ডেস্ক : করোনাভাইরাসে আক্রান্ত গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের প্রতিষ্ঠাতা ও ট্রাস্টি ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী বলেছেন, আমার দেশের জন্য অনেক কাজ বাকি আছে। আমার জন্য দোয়া করবেন। মঙ্গলবার (২৬ মে) তিনি একথা বলেন। এ সময় তার মনোবল অনেক শক্তিশালী মনে হয়েছে।

করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার পর থেকে ধানমণ্ডির বাসায় একটি কক্ষে আইসোলেশনে রয়েছেন ৭৯ বছর বয়সী জাফরুল্লাহ চৌধুরী। সন্ধ্যা ৬টার দিকে তার শরীরে প্লাজমা থেরাপি প্রয়োগ করা হয়েছে। গণস্বাস্থ্য কেন্দ্র নগর হাসপাতালে তাকে নিয়মিত কিডনি ডায়ালাইসিসের পর ‘ও পজিটিভ’ ব্লাড গ্রুপের ২০০ মিলি প্লাজমা দেওয়া হয়।

জাফরুল্লাহ বলেন, আমি আজকে বিকালে ‘ও’ পজেটিভ ব্লাড গ্রুপের ২০০ এমএল প্লাজামা নিয়েছি। এখন আমি ভালো অনুভব করছি। আজকে আমি বাসায় আলাদা রুমে কিডনি ডায়ালাইসিস করেছি। করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার পরে এটা আমার প্রথম ডায়ালাইসিস।

আইসোলেশনে কেমন আছেন- জানতে চাইলে তিনি বলেন, শরীরের তাপমাত্রা একটু বেড়েছিল, এখন ঠিক হয়েছে।

খাওয়া-দাওয়া ঠিকভাবে করছেন কি না- জানতে চাইলে তিনি বলেন, সবই ঠিকভাবে এখন পর্যন্ত চলছে।

জাফরুল্লাহ চৌধুরী জানান, তিনি অসুস্থ হওয়ার পর প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার তার খবর নিয়েছেন। খবর নিয়েছেন বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াও।

সোমবার ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হন। গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের ল্যাবরেটরিতে নমুনা পরীক্ষা হলে তার করোনা পজিটিভ আসে।

গত ৮ মার্চ দেশে প্রথম করোনাভাইরাস শনাক্ত হওয়ার কিছুদিন পর থেকে এই ভাইরাস শনাক্তরণে কিট উদ্ভাবনে নামে গণস্বাস্থ্য কেন্দ্র। ড. বিজন কুমার শীলের নেতৃত্বে বিজ্ঞানীদের একটি দল তা উদ্ভাবনও করেছে। উদ্ভাবিত এ কিটের সক্ষমতা যাচাই চলছে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে (বিএসএমএমইউ)। এ পরীক্ষায় সফলতা পেলে কিট ব্যবহারের অনুমোদন দেবে ঔষধ প্রশাসন অধিদফতর। তারপরই গণস্বাস্থ্য তাদের উদ্ভাবিত কিট সবার করোনা পরীক্ষায় ব্যবহার করা যাবে। এ কিট উদ্ভাবন প্রক্রিয়া মিডিয়াসহ বিভিন্ন পর্যায়ে যোগাযোগের সমন্বয় করে আসছিলেন ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী।

নিউজটি শেয়ার করুন

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত © ২০২০ বাঙলার জাগরণ
কারিগরি সহযোগীতায় :বাংলা থিমস| ক্রিয়েটিভ জোন আইটি