সোমবার, ২৩ নভেম্বর ২০২০, ০৯:৪০ অপরাহ্ন

অগ্নিকান্ডের দায় এড়াতে পারে না ইউনাইটেড হাসপাতাল

নোয়াখালীর কথা ডেস্ক : রাজধানীর ইউনাইটেড হাসপাতালের করোনা ইউনিটে অগ্নিকাণ্ডের নেপথ্যে কর্তৃপক্ষের অবহেলাকে দায়ী করেছে ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স কর্তৃপক্ষের গঠিত তদন্ত কমিটি। তারা বলছে, ফায়ার সনদ ছাড়া বসানো ওই করোনা ইউনিটে অগ্নিনির্বাপনের সরঞ্জাম ছিল না। রাখা হয়নি আগুনের সময় জরুরী নির্গমণ পথ। ত্রুুটিপূর্ণ জেনেও শীতাপত নিয়ন্ত্রিত পুরনে মেশিন বসানো হয়েছে করোনা ইউনিটে। অগ্নিনির্বাপনের জন্য রাখা ফায়ার স্টুইংগুইসারগুলো মেয়াদোত্তীর্ণ ছিল।

বুধবার ফায়ার সার্ভিসের গঠন করা কমিটি সংস্থাটির মহাপরিচালকের (ডিজি) কাছে তাদের তদন্ত প্রতিবেদন জমা দিয়েছে। প্রতিবেদনে তারা চিকিৎনাধীন ৫ রোগীর প্রাণহানির জন্য ইউনাইটেড হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের অবহেলা ও গাফিলতিকে দায়ি করেছে।

তদন্ত কমিটির প্রধান ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্সের উপ-পরিচালক (ঢাকা) দেবাশীষ বর্ধন বলেন, আমরা অগ্নিকাণ্ডের কারণ, ক্ষয়ক্ষতি ও প্রাণহানির বিবরণ এবং একই সঙ্গে প্রতিকারে সুপারিশ করেছি। তারা করোনা ইউনিটে কোন ধরনের ফায়ার এক্সিট রাখেনি। ভষ্মীভুত করোনা ইউনিটটি অস্থায়ীভাবে তৈরি করা ছিল। পার্টিশনগুলো পারটেক্স দিয়ে তৈরি, যা অতিমাত্রায় দাহ্য। আগুন যখন লেগেছে তাৎক্ষণিকভাবে একসঙ্গে পুরোটায় লেগে যায়। দায়িত্বরত কর্মকর্তারা নিজের প্রাণ বাঁচাতে সবাই বেরিয়ে নিরাপদে চলে যান। আগুন লাগার সময় রোগীদের বাঁচানোর চেষ্টা করা হয়নি। ফলে আগুন লাগার পর একজন রোগীও বের হতে পারেননি। সেখানে হ্যান্ড স্যানিটাইজার, অক্সিজেন সিলিন্ডারসহ অতিদাহ্য অনেক পদার্থ রাখা ছিল।

প্রসঙ্গত, গত ২৭ মে রাতে রাজধানীর গুলশানের ইউনাইটেড হাসপাতালের করোনা ইউনিটে অগ্নিকাণ্ডে ৫ জন রোগী দগ্ধ হয়ে মারা যান।

নিউজটি শেয়ার করুন

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত © ২০২০ বাঙলার জাগরণ
কারিগরি সহযোগীতায় :বাংলা থিমস| ক্রিয়েটিভ জোন আইটি