বুধবার, ০২ ডিসেম্বর ২০২০, ০৬:৫৬ পূর্বাহ্ন

দক্ষিণ সুদানে ‘বাংলাদেশ রোড’

নিউজ ডেস্ক :  বাংলাদেশি শান্তিরক্ষীরা বিদেশের মাটিতে প্রতিনিয়ত দেশের মুখ উজ্জ্বল করছে। ঝুঁকি আর চ্যালেঞ্জ নিয়ে কাজ করছেন প্রতিকূল পরিবেশে। বাংলাদেশি শান্তিরক্ষীদের  কাজের  কারণে  বিদেশেও যখন ‘বাংলাদেশের’ নামে কোনো স্থাপনার নামকরণ হয় তখন স্বভাবতই বুকটা গর্বে ভরে  উঠে। দক্ষিণ সুদানে আরেক গর্বের ইতিহাস তৈরি হলো। বাংলাদেশের নামেই একটি সড়কের নাম রাখা হলো। সম্প্রতি ওই সড়ক নির্মাণ করে বাংলাদেশ ইঞ্জিনিয়ার কন্টিনজেন্ট-১৯। সেনাবাহিনীর দায়িত্বশীল সূত্র এ তথ্য জানায়।

২০১১ সালের ৯ জুলাই পৃথিবীর মানচিত্রে জন্ম হয় স্বাধীন দক্ষিণ সুদানের। জন্মের পর থেকেই অভ্যন্তরীণ সংঘাত ও গৃহযুদ্ধে বিপর্যপ্ত হয়ে পড়ে সদ্য স্বাধীনতাপ্রাপ্ত দেশটি। অশান্ত দক্ষিণ সুদানে শান্তি ফেরাতে জাতিসংঘের হয়ে কাজ করেছে বাংলাদেশ সেনাবাহিনী। দক্ষিণ সুদানে শান্তিরক্ষা ও ইউনাইটেড ন্যাশনস মিশন ইন সাউথ সুদান প্রদত্ত ইঞ্জিনিয়ারিং কার্যক্রম পরিচালনার পাশাপাশি অবকাঠামোগত উন্নয়নের মাধ্যমে দেশটির মানুষের জীবনযাত্রার মানোন্নয়নে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করছে বাংলাদেশ ইঞ্জিনিয়ার কন্টিনজেন্ট-১৯। মৌলিক অধিকার বঞ্চিত দূর্গম অঞ্চলের মানুষদের প্রতিনিয়ত দিয়ে যাচ্ছে নানা ধরনের সেবা।

বাংলাদেশ ইঞ্জিনিয়ার কন্টিনজেন্ট-১৯ দেশটির  প্রধান মহাসড়ক সংস্কার ও রক্ষণাবেক্ষণ কাজের অংশ হিসেবে ‘মুন্দ্রি-মারিদি-ইয়াম্বিয়’ (২৫৬ কিঃ মিঃ) রাস্তা সংস্কার ও রক্ষণাবেক্ষণের কাজের শান্তিরক্ষা মিশন কর্তৃপক্ষের কাছ থেকে দায়িত্বপ্রাপ্ত হয়। এ লক্ষ্যে মুন্দ্রি এলাকায় অস্থায়ী ক্যাম্প স্থাপন করা হয়। মহাসড়কটির সংস্কার ও মেরামত কাজ চলাকালীন সময়ে এক্সিকিউটিভ উাইরেক্টর, মুন্দ্রি কাউন্টি  তাবান জ্যাকসন ক্যাম্প কমান্ডারের সঙ্গে যোগাযোগ করেন। স্থানীয় কিছু গ্রাম ভিত্তিক অনুন্নত এলাকার সঙ্গে ‘মুন্দ্রি-মারিদি’ মূল সড়কের সংযোগ সড়ক নির্মাণের অনুরোধ জানান। বাংলাদেশ ইঞ্জিনিয়ার কন্টিনজেন্ট-১৯ দক্ষিণ সুদানের মানুষের জীবনযাত্রার মানোন্নয়ন ও স্থানীয় জনসাধারনের সাহায্যার্থে ‘হাই তিরিরি’ নামক গ্রাম ও ‘মুন্দ্রি-মারিদি’ মূল সড়কের মাঝে ১টি সংযোগ সড়ক নির্মাণ করে। সড়কটি নির্মাণের কারণে ‘হাই তিরিরি’ নামক গ্রামটির সাথে মুন্দ্রি শহরের সরাসরি যোগাযোগ স্থাপিত হয়।

ওই সড়কটি নির্মাণের কারণে জরুরি স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিতকরণ, শিশুদের স্কুলে যাতায়াত, বায়োজ্যেষ্ঠ ও স্থানীয় জনগণের চলাচল এবং বাণিজ্যিকভাবে গ্রামবাসী উপকৃত হয়েছে। স্থানীয় জীবন যাত্রার মান উন্নয়নে সড়ক নির্মাণের কারণে ব্যানইঞ্জিনিয়ার (কনস্ট্রাকশন)/১৯ এর অবদানের স্বীকৃতি স্বরূপ প্রশাসন নবনির্মিত সড়কটি ‘বাংলাদেশ রোড’ নামে নামকরণ করে। জাঁকজমকপূর্ণ অনুষ্ঠানের মাধ্যমে সড়কটি উদ্বোধন করা হয়। দক্ষিণ সুদানের বহুল প্রচারিত ‘রেডিও মিরায়া’ এবং জাতীয় দৈনিক পত্রিকা ‘জুবা মনিটর’ এ ‘বাংলাদেশ রোড’ সংক্রান্ত সংবাদক প্রচার ও প্রকাশিত হয়। এটি দক্ষিণ সুদানে মিশন এলাকায় কর্মরত সদস্যসহ সমগ্র দেশে ও আন্তর্জাতিক অঙ্গনে বাংলাদেশ ইঞ্জিনিয়ার কনস্ট্রাকশন-১৯ তথা বাংলাদেশের ভাবমূর্তি উজ্জ্বল করে। সড়কটি অনলাইন ডিজিটাল ম্যাপ ও আনমিস অফিসিয়াল ম্যাপেও হালনাগাদ করা হয়েছে।

নিউজটি শেয়ার করুন

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত © ২০২০ বাঙলার জাগরণ
কারিগরি সহযোগীতায় :বাংলা থিমস| ক্রিয়েটিভ জোন আইটি