রবিবার, ২০ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০৪:১১ পূর্বাহ্ন

লক্ষ্মীপুরে কৃষককে গাছের সাথে বেঁধে নির্যাতনের ঘটনায় মামলা, গ্রেফতার ৩

লক্ষ্মীপুর প্রতিনিধি : চুরির অপবাদ দিয়ে লক্ষ্মীপুর সদর উপজেলার চর আলী হাসান গ্রামের কৃষক আমির হোসেনকে গাছের সাথে বেঁধে বর্বর নির্যাতনের ঘটনায় ১৮ জনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়েছে।

মঙ্গলবার রাতে নির্যাতিত কৃষক আমীর হোসেন বাদি হয়ে ১০ জনের নাম উল্লেখ এবং আরও ৮ জনকে অজ্ঞাত আসামী করে সদর থানায় এ মামলা দায়ের করেন। এতে চর রমনী মোহন ইউপি চেয়ারম্যান আবু ইউসুফ ছৈয়ালকে মামলায় প্রধান আসামী করা হয়। ইউপি সদস্য মো. স্বপন ওই মামলা আসামী।

এ ঘটনায় বুধবার ভোররাতে পুলিশ মামলার তিন আসামীকে গ্রেফতার করে। গ্রেফতারকৃতরা হলেন জুলহাস, দেলু মুন্সী ও সাইজ উদ্দিন।

সদর থানা পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) মোসলেহ উদ্দিন জানান, ইউপি চেয়ারম্যান ও ইউপি সদস্যসহ ১৮ জনকে আসামী করে থানায় মামলা করেছে নির্যাতিত কৃষক আমির হোসেন। এ ঘটনায় মামলার তিন আসামীকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। চেয়ারম্যান ও ইউপি সদস্যসহ অন্য আসামীদের ধরতে অভিযান চলছে।

উল্লেখ্য, ২৩ আগষ্ট সোমবার রাতে ঘরের ফেরার পথে কৃষক আমির হোসেনকে চুরির অপবাদ দিয়ে চেয়ারম্যানের নির্দেশে প্রতিবেশী সোহাগ, জুলহাস, আরিফ হোসেন ও দেলু মোল্লা নামে কয়েকজন ব্যাক্তি আটক করে গাছের সাথে বেঁধে ববর্র নির্যাতন চালায়। এক পর্যায়ে স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান আবু ইউসুফ ছৈয়াল ও ইউপি সদস্য স্বপনকে খবর দেয় তারা। পরে তাদের উপস্থিতিতেও বেধড়ক মারধর করা হলে জ্ঞান হারিয়ে ফেলেন ওই কৃষক। তার শোর চিৎকারে পরিবারের লোকজন এগিয়ে এলে আমির হোসেনকে ইউপি সদস্য স্বপনের বাড়িতে নিয়ে একটি সালিশ বৈঠকের আয়োজন করে চেয়ারম্যান।

অভিযোগ রয়েছে, ইউপি চেয়ারম্যান আবু ইউসুফ ছৈয়াল দীর্ঘদিন ধরে কৃষক আমির হোসেনের কাছ থেকে কিছু জমি বাগিয়ে নিতে চায়। ওই জমি দিতে রাজি না হওয়ায় পরিকল্পিতভাবে চুরির অপবাধ দিয়ে গাছের সাথে বেঁধে এ বর্বর নির্যাতন চালানো হয়েছে। মামলা না করতে ও চিকিৎসা না নেয়ার প্রতিশ্রুতি নিয়ে আমির হোসেন এবং তার স্ত্রী ও তিন সন্তানের কাছ থেকে কয়েকটি সাদা কাগজে স্বাক্ষর নেয় চেয়ারম্যান। এ ঘটনার পর থেকে নিরাপত্তাহীনতায় মধ্যে রয়েছেন পুরো পরিবার।

নিউজটি শেয়ার করুন

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত © ২০২০ বাঙলার জাগরণ
কারিগরি সহযোগীতায় :বাংলা থিমস| ক্রিয়েটিভ জোন আইটি