বুধবার, ২৫ নভেম্বর ২০২০, ১২:৩৫ পূর্বাহ্ন

শিরোনাম

কালীগঞ্জে আ’লীগের দুই পক্ষের সংঘর্ষে আহত ৫

ঝিনাইদহের কালীগঞ্জ উপজেলায় আধিপত্য বিস্তার কেন্দ্র করে আওয়ামী লীগের দুপক্ষের সংঘর্ষে অন্তত ৫ জন আহত হয়েছেন। এ সময় অন্তত ১৫টি বোমার বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটেছে।

রোববার সকাল সাড়ে ৮টার দিকে উপজেলার পুকুরিয়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। আহতরা হলেন- আসাদুল ইসলাম, আবদুল মান্নান মনা, হাফিজুর রহমান, মিলনসহ পাঁচজন। এদের মধ্যে আসাদুলের অবস্থা গুরুতর। তাকে কালীগঞ্জ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, শিমলা-রোকনপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান ও আওয়ামী লীগ নেতা নাসির চৌধুরীর সঙ্গে তারই ভাইপো মিনি মালিথার কিছু দিন ধরে বিরোধ দেখা দেয়।

গত দুদিন আগে পুকুরিয়া গ্রামের বাবুল খা-কে না পেয়ে ছমিরন নেছাকে মারধর করে নাসির চেয়ারম্যানের সমর্থকরা। এরই জের ধরে রোববার সকালে নাসির চেয়ারম্যানের লোকজন আবারও মিনি মালিথার সমর্থক হাফিজুর রহমানের ওপর হামলা করে।

এ সময় দুপক্ষই সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে। সংঘর্ষে অন্তত ১৫টি বোমার বিস্ফোরণ ঘটানো হয়।

এক গ্রুপের নেতৃত্ব দেয়া চেয়ারম্যান নাসির চৌধুরী বলেন, রোববার সকালে আসাদুল ও আবদুল মান্নান মনা এই দুজনকে মিনি মালিথা ও মঞ্জুর নেতৃত্বে মারধর করে। পরে আমরা সেখানে গেলে তারা বোমার বিস্ফোরণ ঘটায়।

অন্যপক্ষের মিনি মালিথা বলেন, গত দুদিন আগেও বাবুল খা-কে না পেয়ে তার স্ত্রীকে মারধর করা হয়। আবার রোববার সকালে হাফিজুর রহমানকে মারধর করে। নির্যাতিতরা প্রতিরোধ করতে গেলে বোমার বিস্ফোরণ ঘটায় নাসির চেয়ারম্যান ও তার সমর্থকরা। বোমার বিস্ফোরণে হাফিজুর ও মিলন নামে দুজন আহত হয়েছেন।

ঘটনাস্থলে উপস্থিত কালীগঞ্জ থানার এসআই আবুল খায়ের বলেন, বর্তমানে পরিস্থিতি শান্ত। এলাকায় পুলিশ মোতায়েন রয়েছে। পুলিশ আসার পর কোনো বোমার বিস্ফোরণ ঘটানো হয়নি।

আগে বিস্ফোরণ হয়েছে কিনা তেমন আলামত এখনও আমরা পাইনি বলে জানান পুলিশের ওই কর্মকর্তা।

নিউজটি শেয়ার করুন

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত © ২০২০ বাঙলার জাগরণ
কারিগরি সহযোগীতায় :বাংলা থিমস| ক্রিয়েটিভ জোন আইটি