শনিবার, ০৫ ডিসেম্বর ২০২০, ১১:১৫ পূর্বাহ্ন

কালিয়াকৈরে জবাই করে স্কুল ছাত্রীকে খালে ডুবিয়ে গুম,লাশ খুজেন খুনীও

গাজীপুর প্রতিনিধি :: গাজীপুরের কালিয়াকৈরে মঙ্গলবার রাতে ৪র্থ শ্রেনীর এক ছাত্রীকে জবাই করে হত্যার পর সেফটি ট্যাংকির ঢাকনায় লাশ বেধে খালের পানিতে ডুবিয়ে গুমের চেষ্টা করেছে বাড়ির ভাড়াটিয়ে। পরে পরিবারের সঙ্গে লাশ খোঁজেও বেড়ান ঐ খুনী। ঘটনাটি ঘটেছে

উপজেলার উত্তর গজারিয়া এলাকায় মঙ্গলবার রাতে। এ ঘটনায় স্বামীকে গ্রেপ্তার ও স্ত্রীকে আটক করা হয়েছে। ধারণা করা হচ্ছে,স্বার্ণালংকার লুট ও ধর্ষণের পর তাকে নৃশংসভাবে হত্যা করা হয়। নিহত হলো, কালিয়াকৈর উপজেলার উত্তর গজারিয়া এলাকার সাহেব আলীর মেয়ে লিপুমনি লামিয়া (৯)। সে টাঙ্গাইলের মির্জাপুর গোড়াই এলাকার আলোকিত হৃদয় প্রাথমিক বিদ্যালয়ের চতুর্থ শ্রেণীর ছাত্রী।

গ্রেপ্তারকৃত হলেন- বগুড়ার সদর থানার ফুলবাড়ি উত্তরপাড়া এলাকার বিল্লাল হোসেনের ছেলে সুমন মিয়া (২৭) এবং আটককৃত হলেন, সুমনের স্ত্রী মিলি বেগম (২২)। নিহতের পরিবার, এলাকাবাসী ও পুলিশ সুত্রে জানা যায়, সাহেব আলী উপজেলার উত্তরগজারিয়া এলাকায় নিজের বাড়িতে তার স্ত্রী শামীমা বেগম, তিন ছেলে আব্দুল্লাহ আল মামুন, সুমন মিয়া,ইমন মিয়া, একমাত্র শিশু মেয়ে লামিয়া এবং বড় ছেলের বউকে নিয়ে বসবাস করে আসছেন। তাদের কলোনিতে ১৬ থেকে ১৭টি কক্ষের মধ্যে ১৪টি কক্ষে অন্য ভাড়াটে বসবাস করে।

এরমধ্যে গত তিন মাস আগে দুই মাসের অগ্রিম ভাড়া দিয়ে সুমন মিয়া ও তার স্ত্রী মিলি বেগম এবং ছেলে আলিফকে নিয়ে গাজীপুরের কালিয়াকৈরে আসেন। পরে নিজেকে ইন্ডিয়ান জিরা ব্যবসায়ী পরিচয়ে তার বাসায় ভাড়া নিয়ে তারা বসবাস করে আসছে। নিজেকে ইন্ডিয়ান জিরা ব্যবসায়ী পরিচয় দিলেও সুমন ওই এলাকায় বিভিন্ন সময় রাজমিস্ত্রির কাজ করতেন। বেশ কয়েকদিন ধরে ৬-৭ হাজার টাকা নিয়ে সুমনের সঙ্গে বাড়ির মালিকে চলে আসছিল।

নিউজটি শেয়ার করুন

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত © ২০২০ বাঙলার জাগরণ
কারিগরি সহযোগীতায় :বাংলা থিমস| ক্রিয়েটিভ জোন আইটি